ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • শনিবার   ২৩ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৮ ১৪২৮

  • || ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দৈনিক নেত্রকোনা

করোনা ঝুঁকি পরীক্ষা ঘরে বসেই, সমাধান আনল তথ্য প্রযুক্তি বিভাগ

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ৩১ মার্চ ২০২০  

ঘরে বসেই করোনাভাইরাসের ঝুঁকি পরীক্ষার জন্য একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। সোমবার দুপুরে এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ তথ্য জানান।

পরীক্ষামূলকভাবে চালু হওয়া এই সফটওয়্যারের সাহায্যে আপনি কোভিড-১৯ বা নভেল করোনাভাইরাস দ্বারা আক্রান্তের ঝুঁকিতে রয়েছেন কি না, তা নিজেই মূল্যায়ন করতে পারবেন। জানতে পারবেন আপনার ঝুঁকির মাত্রা ও করণীয় সম্পর্কেও। ব্যবহারকারীদের স্বপ্রণোদিত তথ্য প্রদান, ভবিষ্যৎ করোনাভাইরাস সংক্রান্ত তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ, বিগ ডাটা ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাবিষয়ক প্রযুক্তিতে ব্যবহার করা হবে। এই সফটওয়ার থেকে প্রাপ্ত ফলাফলকে অভিজ্ঞ ডাক্তার কর্তৃক স্বাস্থ্য পরামর্শ হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না।

সফটওয়ারে আপনার শেয়ার করা তথ্যের গোপনীয়তা বজায় রাখা হবে। এই সফটওয়্যারটি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞদের সহায়তায় তৈরি করা হয়েছে।

জুনাইদ আহমেদ বলেন, ঘরে বসেই করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি পরীক্ষা করুন। রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) প্রতিদিন লাখ লাখ কল আসছে। অনেকে খুব সাধারণ বিষয়েও প্রশ্ন করছেন। এতে কাঙ্খিত সেবা দিতে নানা সংকট তৈরি হচ্ছে। একসঙ্গে লাখ লাখ মানুষকে সেবা দিতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সের (এআই) ব্যবহার করা হয়েছে। https://livecoronatest.com নামে এই সাইটে গিয়ে কিছু প্রশ্নের জবাব দিলে বোঝা যাবে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার মতো ঝুঁকিতে আছেন কি না।

তিনি বলেন, যদি ঝুঁকিতে থাকেন তাহলে নিজের নাম, মুঠোফোন নম্বর ও যেখানে অবস্থান করছেন তা পূরণ করে দিলে তথ্যগুলো সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চলে যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নিজের পরীক্ষা নিজে অনলাইনে করা গেলে করোনা নিয়ে আতঙ্ক কমবে। এ ছাড়া যাঁরা প্রকৃতই করোনা আক্রান্তের ঝুঁকিতে রয়েছেন তাঁদের খুঁজে বের করতে এই ওয়েবপেজটি সহায়তা করবে। ঝুঁকিতে থাকা লোকজনের সঙ্গে স্থানীয় চিকিৎসকদের যোগাযোগ করিয়ে দেওয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।