ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১ ১৪২৮

  • || ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দৈনিক নেত্রকোনা

নেত্রকোনায় মাছ ধরা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ২০

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০১৯  

নেত্রকোনার খালিয়াজুরীতে হাওরে মাছ ধরার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে চলা এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে।

গুরুতর আহত ৫ জনকে খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদেরকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার নগর ইউনিয়নের বাঘাটিয়া গ্রামবাসীর সঙ্গে একই ইউনিয়নের গন্ডামারা গ্রামবাসীর এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করলে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাঘাটিয়া গ্রামের পাশের ‘মালির খাল’ নামক হাওরে প্রতি বছরই বাঘাটিয়া ও গন্ডামারা গ্রামের লোকজন মিলেমিশে মাছ ধরে আসছিল। কিন্তু এবার বাঘাটিয়া গ্রামের লোকজন ওই হাওরে মাছ ধরতে গন্ডামারা গ্রামের লোকজনদের বাধা দিয়ে আসছিল।

এ অবস্থায় বুধবার দুপুরে গন্ডামারা গ্রামের কয়েকজন লোক জাল নিয়ে মাছ ধরার জন্য ওই হাওরে যান। বিষয়টি টের পেয়ে বাঘাটিয়া গ্রামের লোকজন সেখানে গিয়ে তাদেরকে মাছ ধরতে বাধা দেন। পরে এ নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে দুই গ্রামের লোকজনই সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের ধারাল অস্ত্র, বল্লম, কাতরা, লাঠিসোটা ও ইট-পাটকেলের আঘাতে কমপক্ষে ২০ জন আহত হন।

খালিয়াজুরী থানার ওসি এ টি এম মাহমুদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। তবে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা চলছে বলেও ওসি জানান।