ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • শুক্রবার   ২২ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দৈনিক নেত্রকোনা

ট্রেনের ২০ হাজার বগিকে বানানো হচ্ছে আইসোলেশন ওয়ার্ড

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ৮ এপ্রিল ২০২০  

বিশ্ব মহামারির আগে প্রতিদিন ২০ হাজার যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতো ভারতীয় রেলওয়ে। দূরপাল্লা থেকে শুরু করে নানা মহানগরের মাঝে প্রায় ৭ হাজার ৩৪৯টি স্টেশন থেকে ছাড়তো এসব ট্রেন। ভারতজুড়ে এখন চলছে ২১ দিনের লকডাউন। তাই ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন সেবা বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয় ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

ট্রেন চলাচল বন্ধের ঘোষণা দিয়েই হাত গুটিয়ে বসে নেই ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। হু-হু করে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা, এ কথা মাথায় রেখে ২০ হাজার বগি আইসোলেশন ওয়ার্ডে রূপান্তর করছে তারা।

এশিয়ার প্রাচীনতম রেলওয়ে নেটওয়ার্কটির ১২৫টি নিজস্ব হাসপাতাল রয়েছে ভারতজুড়ে। তাই নিঃসন্দেহে ভ্রাম্যমাণ হাসপাতাল শয্যা পরিচালনার সক্ষমতা আছে প্রতিষ্ঠানটির। দেশটিতে করোনা হানা দেয়ার পরই ১৬টি রেলওয়ে জোন প্রধানদের এক বিশেষ নির্দেশনায় অব্যবহৃত রেলওয়ে ক্যারেজ (বগি) চিহ্নিত করার নির্দেশ দেয়া হয়। এসব বগিকেই হাসপাতালে রূপ দেয়ার কাজ চলছে এখন।

 

আইসোলেশন বগির জানালায় মশারি লাগাচ্ছেন দুই কর্মী

আইসোলেশন বগির জানালায় মশারি লাগাচ্ছেন দুই কর্মী

২০ হাজার বগির প্রতিটিতে ১৬ জন করে রোগী স্বচ্ছন্দে থাকতে পারবেন। নার্সদের জন্য থাকবে স্বতন্ত্র থাকার জায়গা। এছাড়াও থাকবে চিকিৎসকের জন্য একটি কেবিন। প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র এবং যন্ত্রপাতি মজুদ থাকবে। সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এই বিশেষ ট্রেনগুলো তৈরি হওয়ার পর যেখানে প্রয়োজন সেখানেই হাজির হতে পারবে। 

ভারতের রেলওয়ে মন্ত্রী পীযুষ গয়াল এক টুইট বার্তায় বলেন, এখন থেকে রেলওয়ে পরিষ্কার, জীবাণুমুক্ত এবং স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের সুস্থ হওয়ার মতো পরিবেশ দিয়ে সহায়তা করবে।