ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৭৬০

শেষ হতেও পারে আবার নাও হতে পারে-মাশরাফি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০১৮  

বর্তমান সময়ে দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে আলোচ্য বিষয়, ‘দেশের মাটিতে এটাই কি মাশরাফি বিন মুর্তজার শেষ সিরিজ?’ গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গেলেই ঘুরে ফিরে একই প্রশ্ন আসছে বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়কের কাছে। তিনিও সেসব প্রশ্নের উত্তর দেন সোজাসাপ্টা।


গতকাল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ চলাকালীন শের-ই-বাংলার প্রেস বক্স থেকে গ্যালারী, সবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন মাশরাফি। কেউ খেলা দেখতে এসেছিলেন মিরপুরে মাশরাফির শেষ ম্যাচটা দেখবেন বলে। এমনটা ভাবতেই কেঁদে ফেলেন অনেকে।
সিরিজের বাকি আছে আরও একটা ম্যাচ। সিলেটে অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ ডিসেম্বর। এই ম্যাচকে ঘিরেও মাশরাফি সমর্থকদের মনে একটাই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে, সিলেটেই বুঝি শেষ?
সবার মনে যখন মাশরাফির শেষ নিয়ে ভাবনা, তখন নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে কি ভাবছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা?
‘বলতে পারছি না কি হবে সামনে। শেষ হতেও পারে আবার নাও হতে পারে। দেখা যাক কি হয়!’
যারা গতকালকের ম্যাচটা দেখতে এসেছিলেন শুধুই মাশরাফিকে উপলক্ষ করে তাঁদের অনেকেই ম্যাচ শেষে বাড়ি ফিরেছেন দীর্ঘশ্বাস নিয়ে। আর বুঝি লাল সবুজের জার্সিতে কলার উঁচানো মাশরাফিকে দেখবো না শের-ই-বাংলায়!
ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এমন কথায় আবেগ ছুঁয়ে গেছে মাশরাফিকে। ছুঁয়ে যাবে না কেন, তিনিই তো এতদিন বলে আসছেন, আপনাদের সমর্থনের জন্যই আমি আজকের মাশরাফি হয়েছি।
মাশরাফি নিজেও থমকে যান ভক্তদের এমন ভালোবাসার কথা শুনে। সংবাদ সম্মেলনে নিজের আবেগটা লুকিয়ে ভক্তদের ভালোবাসাকে সম্মান জানিয়েছেন।
এমনটা হওয়া খুবই স্বাভাবিক। আমরা জাতি হিসেবে একটু ইমোশনাল। এই জিনিস গুলো অবশ্যই ছুঁয়ে যায় আমাকে। ওই জিনিস গুলো আমার সামনে ঘটলে আমিও অনুভব করতাম। এটা অবশ্যই ভালো লাগা যেমন তার থেকে খারাপ লাগাটাও লাগে। আমার নিজেরও খারাপ লাগে, তাদের জন্যও খারাপ লাগে। কিন্তু এটা খুব স্বাভাবিক, এটা একটা প্রক্রিয়া, একদিন না একদিন তো যেতে হবে। যেমন টি২০ থেকে অবসরের প্রায় বছর খানিক হয়ে গেছে বলে। এখন ওয়ানডে খেলছি, আর কিছুদিন হয়তো খেলবো।
এতকিছুর পরও ভক্তদের জন্য একটা একটা বার্তা দিয়ে রেখেছেন অধিনায়ক। এই সিরিজ দিয়েই যে দেশের মাটিতে শেষ তা একদমই নিশ্চিত নয়।
‘আসলে স্পষ্ট করে বলতে পারছি না শেষ ম্যাচ কিনা। এটা বলা কঠিন এই মুহূর্তে। কারণ, আমি অনেকবার আপনাদের সামনে বলেছি আমি ডিসাইড করে কাজ করি না। এমনও হতে পারে নেক্সট ম্যাচ বা তার পরের ম্যাচ খেলে যদি মনে হয় ভালো লাগছে তাহলে খেলে যাবো, আর বিপরীত হলে ছেড়েও দিতে পারি। আমি আসলে আমার ইনস্ট্যান্ট গাট ফিলিংয়ের উপর চলি। এভাবে কিছু বলা আমার জন্যও কঠিন। কারণ আমি চিন্তাও করি না। তবে এই জিনিস গুলো আমার জন্য অবশ্যই ইমোশনাল। এই জিনিস গুলো আমার সামনে ঘটলে দুই পক্ষই কিছুটা সফট হয়ে যায়। সো এটা যত ভালো ফিলিংস হোক অবশ্যই কিছুটা খারাপও লাগে।’

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা