ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • রোববার   ২৯ মার্চ ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৫ ১৪২৬

  • || ০৪ শা'বান ১৪৪১

২৫৪

ভারতে ট্রাম্পের চেয়েও বেশি মানুষ ছিলো বঙ্গবন্ধুর সমাবেশে

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ৩ মার্চ ২০২০  

প্রথমবারের মত ভারত সফর করে গেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে তাকে সংবর্ধনা জানাতে আহমেদাবাদে নির্মিত বিশ্বের সর্ববৃহৎ ক্রিকেট স্টেডিয়াম মোতেরায় জড়ো হয়েছিলেন এক লাখেরও বেশি মানুষ।

‘নমস্তে ট্রাম্প’ নামে সেই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে দেয়া ঘোষণায় ট্রাম্প দাবি করেন যে, ভারতের মাটিতে কোনো বিদেশি রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে তিনিই সবচেয়ে বেশি মানুষের জমায়েতে বক্তব্য দিয়েছেন। তবে তার এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন ভারতের লোকসভার সদস্য ও কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, ট্রাম্পের এই দাবি সঠিক নয়। ভারতে সবচেয়ে বেশি মানুষের জমায়েতে ভাষণ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এর আগে সফর শুরুর পূর্বে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, তাকে স্বাগত জানাতে ৭০ লাখ মানুষ উপস্থিত হবেন। কিন্তু গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সংবর্ধনার দিন স্টেডিয়ামটিতে মাত্র ১ লাখ ২৫ হাজার লোক উপস্থিত ছিলেন। তবে তার ৩০ মিনিটের দীর্ঘ ও ভুল উচ্চারণে ভরা ভাষণ শেষ হওয়ার আগেই এক-তৃতীয়াংশের বেশি মানুষ চলে যান। আর ট্রাম্পের পর মোদির ভাষণের আগে তৃতীয়াংশ চলে যায়।

এরপর গত ২৬ ফেব্রুয়ারি এক টুইটবার্তায় অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করেছেন গুজরাটের স্টেডিয়ামে তিনি যে সমাবেশ করেছেন তা ভারতে যে কোনো বিদেশি রাষ্ট্র প্রধানের সবচেয়ে বড় সমাবেশ। আমি সবাইকে মনে করিয়ে দিতে চাই যে, ১৯৭২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেডে ১০ লাখ মানুষ জড়ো হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বাগত জানাতে।

 

ছবি: বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অধীর রঞ্জন চৌধুরীর টুইট।

ছবি: বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অধীর রঞ্জন চৌধুরীর টুইট।

স্বাধীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এটি ছিল বঙ্গবন্ধুর প্রথম ভারত ও বিদেশ সফর। ৬ ফেব্রুয়ারির সমাবেশ নিয়ে পরের দিনের পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে উল্লেখ করা হয়েছে, কলকাতার সব পথ সেদিন মিলেছিল প্যারেড গ্রাউন্ডে। বঙ্গবন্ধু ভাষণ দেন, সেই ভাষণ কেবল সেই নির্ধারিত ময়দানে নয়, সারা কলকাতা ও হাওড়ার ১০টি পার্কে লাখো মানুষ শুনছিল।

এটিকে ভারতের ইতিহাসের বৃহত্তম জনসভা হিসেবে আখ্যায়িত করে পত্রিকার খবরে আরো লেখা হয়, কলকাতা ও হাওড়ার ১০টি পার্কে একইসঙ্গে লাখো জনতা সেদিন বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শোনেন। প্যারেড গ্রাউন্ডে স্থান সংকুলান না হওয়ায় এসব পার্কে লাউড স্পিকার লাগানো হয়। রাজ্যের বিভিন্ন স্থান থেকে লোক এসেছে সেদিন বঙ্গবন্ধুকে এক নজর দেখবে বলে। জনসভা শেষ হওয়ার পরেও প্যারেড গ্রাউন্ডের দিকে মানুষের ঢল থামেনি। 

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা
section>
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর