ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৮১৮

বৈশাখী সাজে মানানসই গয়না

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল ২০১৯  

বাঙালির প্রাণের উৎসব পয়লা বৈশাখ। সব ধর্ম, মত, বিশ্বাস নির্বিশেষে গোটা বাঙালি জাতিই এদিন মেতে ওঠে বৈশাখ উদযাপনে। তাই বাংলা নতুন বছরের শুরুর দিনটি নিয়ে সবার মধ্যেই থাকে বাড়তি উচ্ছ্বাস। নতুন বছর উদযাপনে একটি বড় অংশজুড়ে থাকে বৈশাখের সাজসজ্জা। ঐতিহ্যবাহী পোশাকের পাশাপাশি আধুনিক সাজসজ্জার সমন্বয় বৈশাখকে রাঙিয়ে তোলে নতুনরূপে। এদিন নারীরা সাধারণত লাল পাড়ে সাদা শাড়ি ও সালোয়ার-কামিজ পরেন। সবকিছুতেই থাকে রঙিন আবেশ। রঙিন পোশাকের সঙ্গে চাই মানানসই সঙ্গানুষঙ্গ। চাই বর্ণিল ও উজ্জ্বল গয়না; যা সাজে নিয়ে আসবে আভিজাত্য, ঐতিহ্য ও আধুনিকতার অপূর্ব সমন্বয়। পয়লা বৈশাখের সাজে পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়নার জন্য একটু ভেবে নেয়া যেতে পারে। কেননা, পোশাকের সঙ্গে গয়নার অসামঞ্জস্য অপ্রতিভ লাগতে পারে। 
বৈশাখে তরুণীদের মাটির গয়নার প্রতি ঝোঁক বেশি থাকে। তাঁত হোক বা সুতি, শাড়ির সঙ্গে লম্বা মাটির গয়না সাজে আনে বাঙালিয়ানা। মাটির দুল ও মালায় রয়েছে রঙের বৈচিত্র্য। মাটির দুলের দাম ৭০ থেকে ১৫০ টাকা আর মালাসহ দুলের দাম ১৫০ থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে। তবে হাল ফ্যাশনে মেটাল এবং পিতলের গয়না আনে আভিজাত্য। ১৬ থেকে ৬৬, সব বয়সী নারী শাড়ি বা কামিজের সঙ্গে বেছে নিচ্ছেন মেটালের গয়না। পিতলের বালা, কানের দুল আর অক্সিডাইজড কানের দুলে রয়েছে বৈচিত্র্যের বাহার। পিতলের বালার দাম ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকা, কানের দুল ১০০ থেকে ৪৮০ টাকা। ঐতিহ্যের সঙ্গে মিল রেখে আপনি পরতে পারেন দেশীয় ঘরানার কুন্দন, মিনাকারী টেকনিকের হাঁসুলি। সাধারণভাবে এর সঙ্গে থাকতে পারে দামি পাথর, রুবি ও রত্ন। পয়লা বৈশাখের মতো ঐতিহ্যবাহী উৎসবের জন্য পরিচ্ছদের সঙ্গে অত্যন্ত মানানসই অনুষঙ্গ। সাজের সঙ্গে মানানসই নানা আকারের হাঁসুলি পাওয়া যাচ্ছে।

ইদানীং শাড়ির পাশাপাশি নানা রকম টপসের সঙ্গে মানিয়ে তরুণীরা বেছে নিচ্ছেন কাঠ, বাঁশ, বেত ও নানা রকম বিডসের গয়না। ব্রাসো, বিডসের মালা ও খোঁপার কাঁটা, দুল বা গয়নার সেট ১৫০ থেকে ৫০০ টাকা, বাঁশের মালা ১৫০ থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত। তাছাড়া কাঠের চুড়ি পাওয়া যাবে ৮০ থেকে ২৫০ টাকায়। কাঠের মালার দাম পড়বে ২০০ থেকে ৩২০ টাকা। আছে নানা আকারের হরেক রঙের পুঁতির গয়না। লম্বা, খাটো, দুই বা তিন ধাপের ইত্যাদি। পুঁতির দুলের দাম ২০০ থেকে ৪০০ টাকা। আর মালার দাম ৩০০ থেকে ৮০০ টাকা। বাঙালিয়ানা এবং নববর্ষের ঐতিহ্যের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে কাচের চুড়ি। লাল ও সাদা-তো বটেই শাড়িতে ব্যবহৃত অন্যান্য রঙের সঙ্গে মিলিয়ে চুড়িও কিনছেন আধুনিক মেয়েরা। রুপা বা পাথর বসানো ধাতুর চুড়িও কিনছেন অনেকে। কাচের চুড়ি ৫০ থেকে ১৫০ টাকার মধ্যে পাবেন।

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা