ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ১৯ সফর ১৪৪১

১৩২

বিনা মূল্যে ধান কেটে দিল স্কাউট সদস্যরা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫ মে ২০১৯  

ময়মনসিংহের ফুলপুরে দরিদ্র কৃষকদের ধান কেটে দিয়ে সহায়তা করছে ফুলপুরের হেলডস ওপেন স্কাউট গ্রুপের সদস্যরা। প্রথম দিনে ক্যান্সার আক্রান্ত বর্গা চাষি আবু বক্কর সিদ্দিকের ৮০ শতক জমির ধান কেটে দিয়েছেন তারা।

ক্যানসারে আক্রান্ত বর্গা চাষি আবু বক্কর সিদ্দিকের ৮০ শতাংশ জমিতে বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু সেই ধান কাটার মতো শক্তি ও শ্রমিকের টাকা না থাকায় স্কাউট গ্রুপের সদস্যরা বিনামূল্যে তার ধান কেটে দেন। সোমবার (১৩ মে) ধান কেটে কৃষকের বাড়িও পৌঁছে দিয়েছেন তারা।

সামাজিক কর্মকাণ্ডের জন্য পুরো উপজেলায় পরিচিত এ স্কাউট গ্রুপটি। এই গ্রুপের দলনেতা তাসফিক হক নাফি জানান, এবার ধান কাটার শ্রমিকের মজুরি বেশি হওয়ায় অনেক দরিদ্র চাষিই ধান কাটতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন।

তাই তারা সিদ্ধান্ত নেন কয়েকজন দরিদ্র কৃষকের জমির ধান তারা স্বেচ্ছাশ্রমে কেটে দেবেন। এরপর তারা ১১ জন কৃষকের একটি তালিকা তৈরি করেন। তালিকার প্রথম নামটি ছিল কৃষক সিদ্দিকের। গতকাল তারা সেই কৃষকের ধান কেটে দেন। ধান কাটার পর তা কৃষকের বাড়িতেও পৌঁছে দেন।

তিনি আরো জানান, কৃষক সিদ্দিকের বাড়ি উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে। সকাল ৮টায় তারা সদরে জমায়েত হন। এরপর ৯টায় রূপসী ইউনিয়নের ঘোমগাঁও গ্রামে পৌঁছে ধান কাটা শুরু করেন। গতকাল সোমবার তারা ছিলেন মোট ২০ জন। তবে তাঁদের দলে মোট সদস্য ৫০ জন। তারা পালা করে এ কাজ করবেন।

ধান কাটায় অংশ নেয়া স্কাউট মিলন মিয়া বলেন, প্রথমবার ধান কাটলাম। অনেক ভালো লেগেছে যে একজন অসহায় মানুষের উপকার করেছি।

এ বিষয়ে কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, আমি দুই বছর ধরে ক্যানসারে আক্রান্ত। চিকিৎসা করে সর্বস্বান্ত হওয়ার পথে। অনেক কষ্ট করে বোরো ধান করলেও শ্রমিক না পেয়ে হতাশায় ছিলাম। তাদের সহায়তায় আমি ধান কাটতে পেরেছি।

হেলডস ওপেন স্কাউট গ্রুপের কো-চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান বলেন, ধানের দাম কম, আবার শ্রমিক সংকটের বিষয়টি এখন সারা দেশের সমস্যা। এ সমস্যা সমাধানের কার্যকর উপায় খুঁজতে গিয়ে আমরা মানববন্ধন বা দাবি আদায়ের কোনো কর্মসূচি পালন না করে সরাসরি সমস্যা সমাধানে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেই। সেই সিদ্ধান্ত থেকেই ধান কাটা। আমাদের এ উদ্যোগ চলমান থাকবে। সদস্যরা আগে কোনো দিন ধান কাটেননি। স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কেটে তারা আনন্দিত।

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা