ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

২৭

নেত্রকোণায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০১৯  

নেত্রকোণার খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান লোকমান হেকিমের বিরুদ্ধে ভিজিএফের চাল আত্মসাৎ, ভুয়া নামে টিউবওয়েল স্থাপন দেখিয়ে টাকা আত্মসাৎ ও উন্নয়ন প্রকল্প পুরোপুরি বাস্তবায়ন না করে অর্থ আত্মসাৎসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুধু তাই নয়, গ্রাম ভিত্তিক বরাদ্দে বৈষম্য, সংরক্ষিত সদস্য ও জনসাধারণের সঙ্গে অসদাচরণসহ ক্ষমতার দাপট দেখান চেয়ারম্যান লোকমান। আর চেয়ারম্যানের এসব অন্যায় কাজে তাকে ইউপি সচিব মুছা মিয়া ও সদস্য আবুল কালাম সহযোগিতা করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। 

ভুক্তভোগী মানিক মিয়া, কোকিলা বেগম, শাহজাহান মিয়াসহ দরিদ্র বেশ কয়েকজনের নাম ভিজিএফের তালিকায় থাকলেও তারা তা পাননি মর্মে আদালতে এফিডেভিট করেছেন। এছাড়া বোয়ালী কুড়ের ফেরিঘাটের টাকা আত্মসাৎ করার ঘটনায় ফেরিঘাটের মাঝি সাজেদুল ইসলামও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালতে এফিডেভিট করেন। 

এ দিকে, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে মেন্দিপুর গ্রামের রহিছ মিয়ার নামে টিউবওয়েল বরাদ্দের টাকা উত্তোলিত হলেও বাস্তবে ওই গ্রামে রহিছ মিয়া নামে কোনো ব্যক্তির অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। 

২০১৮-১৯ অর্থবছরে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় মেন্দীপুর হাওর সড়কে মাটি ভরাটের জন্য তিন লাখ ৯৩ হাজার টাকার বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু কাজটি পুরোপুরি বাস্তবায়ন না করেই বিল উত্তোলন করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।  

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান লোকমান হেকিমের সঙ্গে কথা হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি অনেক দিনের চেয়ারম্যান। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। 

খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এএইচএম আরিফুল ইসলামের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হলে তিনি বলেন, খোঁজ নিয়ে দেখেছি। তবে আমি এখানে যোগদান করার আগে কী হয়েছে, তা জানি না। 

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা
এই বিভাগের আরো খবর