ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৫ ১৪২৬

  • || ১৪ শা'বান ১৪৪১

১০২

নেত্রকোণার সবুজ গ্রাম দরুণ বালি

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

জলবায়ু পরিবর্তন ,প্রাকৃতিক দুর্যোগ,দুষণ,বিপর্যয় ও চারি দিকে পরিবেশ বিপন্নতার মাঝেও নেত্রকোনার সদর উপজেলার কাইলাটি ইউনিয়নের দরুণ বালি গ্রামের অক্সিজেন যুব সংগঠন,রাখাল বন্ধু কৃষক সংগঠন,ফুল পাখি কিশোরী সংগঠন, জৈব চাষীদল, নেত্রকোনা শিক্ষা,সংস্কৃতি পরিবেশ ও বৈচিত্র্য রক্ষা কমিটি আয়োজনে ও বেসরকারী গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিকের সহযোগিতায় সোমবার সকালে দরুণ বালি গ্রামকে সবুজ গ্রাম হিসেবে ঘোষণা মধ্য দিয়ে কার্যক্রম শুরু করেন, জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম ও সবুজ গ্রাম উদ্বোধন করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, দরুণ বালি গ্রামের যুবকরা গ্রামকে সবুজ গ্রাম হিসেবে গড়ে তোলার জন্য যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে আমরা সকলেই তাদের এই সবুজ কাজকে স্বাগত জানাই এবং সাধ্যমত সহযোগিতা করতে চাই।আমি এরকম সুন্দর একটি চিন্তাকে আামদের সকল তরুণদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। যুবকদের সকল উদ্যোগ গুলো এই মুজিব বর্ষে সারা বাংলাদেশ জুড়ে ছড়িয়ে পড়ুক। এই নিয়ে ,নেত্রকোনা শিক্ষা সংস্কৃতি বৈচিত্র্য রক্ষা কমিটির সভাপতি নাজমুল কবীর সরকার বলেন ,আমাদের সকলকেই সবুজ চিন্তা করতে হবে। কথায় ,ব্যবহারেও বিনয়ী হতে হবে। গ্রামকে পরিচছন্ন রাখতে হবে। মানুষে মানুষে সম্পর্ক ভালো রাখার জন্য সুন্দর সমাজ তৈরী হউক । গড়ে উঠুক সবুজ গ্রাম দরুণ বালি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কাইলাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন,সদস্য সচিব আলপনা বেগম, বন্ধু চুলার জেলা ব্যবস্থাপক,বারসিকের আ লিক সমন্বয়কারী মো: অহিদুর রহমান সহ দরুণবালি গ্রামের প্রবীণ, যুবক, কিশোর, শিক্ষার্থীসহ সবর্ স্তরের মানুষ। প্রথমেই গ্রামের যুবকরা তাদের তিন বছর ব্যাপী কর্ম পরিকল্পনা তুলে ধরেন। গ্রামকে সবুজায়নের অংশ হিসেবে প্রত্যেক বাড়ীতে একটি করে সাজনা গাছ রোপন করেছেন,বিতরণ করেছেন ৫০ টি ধোঁয়া বিহীন পরিবেশ বান্ধব চুলা, গ্রামের কৃষকদের জন্য পলিথিন নয় পাটের ও কাপড়ের ব্যাগ বিতরণ করা হয়েছে ১০০টি, পাখির প্রতি ভালোবাসা স্বরুপ গ্রামে গাছে গাছে ঝুলছে পাখির জন্য কলসী যেখানে পাখি বসবাস করবে নিরাপদে, কেঁচো কম্পোস্ট তৈরীর জন্য কৃষকদের কাছে বিতরণ করা হয়েছে কেঁেচা , কবিরাজ আ: হামিদ কৃষক ও যুবদের মাঝে বিতরণ করেন ৩৩০ টি ঔষধি গাছ। মধু চাষী মধু ভাই মৌমাছি পালনের জন্য গ্রামের মানুষকে আহ্বান জানান ও অতিথির মাঝে মধু বিতরণ করেন। কৃষক কালাচান বিতরণ করেন কৃষকদের মাঝে কেঁচ্।ো পলিকল্পনা করা হয়েছে আগামি বছর গ্রামে লাগানো হবে ৫০০ শত নীম গাছ। গাছে গাছে ঝুলছে বাল্য বিবাহ মুক্ত আমাদের গ্রাম, মাদক ছেড়ে খেলা ধর,সুস্থ সুন্দর জীবন গড়,মৌ মাছি বাঁচাও,ব্যাঙ বাঁচাও, কেঁচো,বাঁচাও, পাখি বাঁচাও, গ্রামে কোনো ভিক্ষুক থাকবেনা, আমরা সবাই ভাই ভাই,রাসায়নিকের ব্যবহার কমিয়ে আনো জৈবসার ব্যবহার করো,পলিথিন বর্জন করো। গ্রামে রাস্তার পাশে টানানো হয়েছে পরিবেশ রক্ষায় ১০ টি উপদেশ সমন্বিত ব্যানার । গ্রামের দুটি রান্না ঘরকে মডেল হিসেবে করা হয়েছে পরিচ্ছন্ন রান্না ঘর। আস্তে আস্তে অন্যরা উদ্বূদ্ধ হবে ক্লিনিং কুকিং এ। গ্রামের যুব,কৃষক,কিশোরী, শিক্ষার্থীরা তাদের গ্রামকে সবুজ গ্রাম হিসেবে গড়ে তোলার জন্য অঙ্গীকার করেন।

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা