ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • বৃহস্পতিবার   ১৬ জুলাই ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ১ ১৪২৭

  • || ২৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

দৈনিক নেত্রকোনা
১৬৩

নিখোঁজ নারীর কঙ্কাল উদ্ধারে আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় নিখোঁজ এক নারীর কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি মো. আলম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এর আগে বুধবার ভোরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতার মো. আলম উপজেলার কৈলাটি ইউপির হাঁপানিয়া গ্রামের হাছেন আলীর ছেলে। 

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলার পাশ্ববর্তী উপজেলার বারহাট্টার রতনপুর গ্রাম মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আকরাম হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য প্রধান আসামি মো. আলমকে গ্রেফতার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন তিনি। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মো. আলমকে নেত্রকোনা জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল ম্রং এর আদালতে সোর্পদ করা হয়। নিখোঁজ মিনারা আক্তারের কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকায় ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন আসামি মো. আলম। পরে আদালত তাকে জেল-হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

কলমাকান্দা থানার ওসি মো. মাজহারুল করিম জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিখোঁজ মিনারা আক্তারের কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন মো. আলম।

এর আগে গত বছরের ২৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় সাড়ে ৬টায় উপজেলার নাজিরপুর ইউপির উলুকান্দায় উব্দাখালি নদী থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় একটি নারী কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়। পরে এ ব্যাপারে পুলিশ বাদী হয়ে কলমাকান্দা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

কঙ্কাল উদ্ধারের বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহাদত আলী হিরণ।

নেত্রকোনা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর