ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • মঙ্গলবার   ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ৫ ১৪২৬

  • || ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

১৪২

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করলো স্বামী!

দৈনিক নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ১০ জানুয়ারি ২০২০  

দেড় বছর আগে তমালিকা আক্তার নামের এক যুবতীকে বিয়ে করেন নেত্রকোনার বারহাট্ট্রার সিংধা ইউপির চরসিংধা গ্রামের রাসেল মিয়া। বিয়ের পরই যৌতুকের নেশা মাথায় চড়ে বসে স্বামীর। এরপরই শুরু হয় স্ত্রীকে নির্যাতন। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার গ্রাম্য সালিশও বসে। তবুও থামেনি যৌতুক নেশায় মত্ত রাসেল। অবশেষে বুধবার রাতে নিজ বাড়িতেই নিজের অনাগত সন্তান গর্ভে থাকা অবস্থায় স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করেছেন তিনি। এমন অভিযোগ স্থানীয়দের।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, দেড় বছর আগে ভাটিপাড়ার রমিজ মিয়ার মেয়ে তমালিকার সঙ্গে রাসেলের বিয়ে হয়। এটি ছিল রাসেলের দ্বিতীয় বিয়ে। নিহত তমালিকা সাড়ে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। বিয়ের পর শ্বশুর বাড়ি থেকে টাকা আনতে স্ত্রীকে চাপ দেন রাসেল। এতে স্বামীর মন পেতে বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেন তমালিকা।

কিন্তু রাসেলের যৌতুকের চাহিদা বাড়তে থাকে। ফলে আবারো টাকা আনতে স্ত্রীকে চাপ দেয় স্বামী। এবার তমালিকা রাজি না হওয়ায় একের পর এক শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায় রাসেল। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার গ্রাম্য সালিশ হয়েছে। তবুও স্ত্রীকে নির্যাতনের পরিমাণ কমাননি তিনি। 

পুলিশ আরো জানায়, বুধবার রাতে স্ত্রীকে মারধর করে রাসেল। এরপর ছুরিকাঘাত ও গলা কেটে হত্যা করে পালান তিনি। 

বারহাট্টা থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান জানান, খবর পেয়ে তমালিকার মরদেহ উদ্ধার করে নেত্রকোনা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রাসেলের বাবা আবুল হাসিম ও মা মাজেদা আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত রাসেল ঢাকার একটি পোশাক কারখানায় কর্মরত বলে জানা গেছে। তাকে আটক করতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

দৈনিক নেত্রকোনা
দৈনিক নেত্রকোনা
section>
নেত্রকোনা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর